Templates by BIGtheme NET
ব্রেকিং নিউজ ❯
Home / জাতীয় / কাশ্মীর কখনোই ভারতের অংশ ছিল না

কাশ্মীর কখনোই ভারতের অংশ ছিল না

কাশ্মীর কখনোই ভারতের অংশ ছিল না। ভারতের সাংবিধানিক ৩৭০ ধারাই প্রমাণ করে কাশ্মীর ভারতের অংশ নয়। ১৯৪৭ সালে জওহরলাল নেহরু প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, কাশ্মীরের জনগণের ভাগ্য তারাই নির্ধারণ করবে। জাতিসংঘ এ বিষয়টি নিয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করেছিল। কাশ্মীরে গণহত্যা নির্যাতন-নিপীড়ন বন্ধ করতে হবে। ভারত সরকার ৩৭০ সাংবিধানিক ধারা ফিরিয়ে না দিলে কাশ্মীরের পাশে থাকবে বাংলাদেশের মুসলমানরা।

গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে কাশ্মীরে মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদ এবং তাদের স্বায়ত্তশাসন ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে সর্বদলীয় কাশ্মীর সংহতি ফোরাম বাংলাদেশ আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম-এর মহাসচিব ও ফোরামের আহবায়ক আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী একথা বলেন। কাশ্মীরের জনগণের নির্যাতন নিপীড়ন বন্ধ এবং সাংবিধানিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে গতকাল বিভিন্ন সংগঠন মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেছে। কাশ্মীরে গণহত্যা, নির্যাতন বন্ধের দাবিতে আজ শনিবার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। দলীয় আমীর মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ এতে সভাপতিত্ব করবেন।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা ফজলুল করিম কাসেমীর পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম-এর সহ-সভাপতি আল্লামা আব্দুর রব ইউসুফী, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের আমীর ড.ঈসা শাহেদী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আব্দুল কাদের, জাতীয় পার্টি (জাফর) ভাইস প্রেসিডেন্ট এড. শফীউদ্দীন, খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, বাংলাদেশ ফরায়েজী আন্দোলনের মহাসচিব ডা. আজিজুর রহমান, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ-এর যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, ইসলামী ঐক্যজোটের (এড. রকীব) মহাসচিব অধ্যাপক আব্দুল করীম খান, এনডিপির চেয়ারম্যান ক্বারী আবু তাহের, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, মাওলানা জয়নুল আবেদীন, খেলাফত মজলিসের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা শফিক উদ্দিন, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক ও মাওলানা জালাল উদ্দিন আহমেদ, মাওলানা এনামুল হক মুসা, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা মোস্তফা তারিকুল হাসান, জাগপার সাংগঠনিক সম্পাদক খান আসাদ, মুসলিম লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আসাদ ও মাওলানা শরিফ উল্লাহ।

আল্লামা আব্দুর রব ইউসূফী বলেন, কাশ্মীরকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে দীর্ঘ ৭০ বছর থেকে ভারত কেবল জবরদখল করে রাখেনি বরং কাশ্মীরকে গিলে খাওয়ার পাঁয়তারা করছে। ভারতের এই অন্যায় বাসনা পূরণের জন্য কাশ্মীরি জনগণের উপর ভয়াবহ অত্যাচার খুন-গুম, অপহরণ চালাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন, বিশ্ব দুইভাগে বিভক্ত। একদল জালিম অন্যদল মজলুম। আমি মজলুমের পক্ষে আছি। বাংলাদেশের জনগণ জালিম ভারতের পক্ষে নয় মজলুম কাশ্মীরের পক্ষে। তিনি বলেন, কাশ্মীরে জুলুম নির্যাতন বন্ধ না হলে দিল্লীর মসনদে একদিন কালিমার পতাকা উড়বে ইন শা আল্লাহ।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ
কাশ্মীরসহ দেশে দেশে মুসলিম নির্যাতনের প্রতিবাদে বিশ্ব মুসলিম নেতৃত্বকে জোরালো ভূমিকা পালন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। তিনি বলেন, কাশ্মীর কখনো ভারতের অংশ ছিল না। মাওলানা ইউনুছ আহমাদ আরো বলেন, ভারত যুদ্ধে জড়ালে বাংলাদেশের জনগণ ঈমানদার জনতা মজলুম কাশ্মীরের পক্ষে থাকবে এবং তাদের সব ধরনের সহযোগিতা করবে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ইসলামী ঐক্যজোট
ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী কাশ্মীরকে একটি বিরোধিত এলাকা হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন যে, কাশ্মীর কোন দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় নয়। তিনি কাশ্মীর বিরোধ নিষ্পত্তির জন্যে ১৯৪৯ সনের ৫ জানুয়ারী নিরাপত্তা পরিষদে গৃহীত প্রস্তাব বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণের জন্যে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি নেজামে ইসলাম পার্টি আয়োজিত কাশ্মীর সম্পর্কিত এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। গতকাল বাদ জুমা পার্টির পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তৃতা করেন অধ্যাপক এহতেশাম সারোয়ার, মুফতি আবদুল কাইয়ূম, মাওলানা একেএম আশরাফুল হক, মাওলানা ওবায়দুল হক, পীরজাদা সৈয়দ মো. আহছান ও মো. নুরুজ্জামান প্রমুখ।

জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশ
কাশ্মীরে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উপর অমানবিক, নির্মম অত্যাচার ও নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং কাশ্মীরের স্বাধীনতার দাবিতে গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা দেশের বৃহত্তর ইমামদের সংগঠন জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশ-এর উদ্যোগে চকবাজারস্থ ঐতিহাসিক শাহী মসজিদ চত্তরে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় বক্তারা অনতিবিলম্বে বাংলাদেশের সরকারকে কাশ্মীরে মুসলমান নিধন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়।

সংগঠনের সভাপতি ক্বারী আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মুফতি মিনহাজ উদ্দিন, মাওলানা তসলিম আহমদ, মাওলানা আনোয়ারুল হক, মাওলানা যোবায়ের কাসেমী, মাও নুরুদ্দিন লাহোরী, মাওলানা বেলায়েত হোসেন আল-ফিরোজী, মাওলানা শামসুল হক উসামনী, মাওলানা হামিদুল হক, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা আব্দুল হক।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন
কাশ্মীরে গণহত্যা ও নির্যাতন বন্ধ ও তাদের স্বাধীনতার দাবিতে আজ শনিবার বিকেল ৪টায় বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ সফল করার আহবান জানিয়েছেন দলের প্রধান আমীরে শরীয়ত মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী ।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ জেলা
সিদ্ধিরগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, কাশ্মীরের মুসলমানদের উপর নির্যাতন ও দমন-পীড়ন বন্ধের দাবিতে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার নেতাকর্মীরা। গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা সিদ্ধিরগঞ্জ ডাচবাংলা মোড়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা। এতে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সী। মিছিলটি মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় থেকে শুরু হয়ে ডাচবাংলা ব্যাংক এলাকায় গিয়ে সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্যের মাধ্যমে শেষ করা হয়। বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মুফতী কবির হোসাইনের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন, মুফতী ওমর ফারুক স›দ্বীপী, মাওলানা শেখ সাদী, মুফতী জামাল উদ্দিন, মাওলানা আক্তারুজ্জামান সাদেকী, মাওলানা আশ্রাফ উদ্দিন, মাওলানা নাসিম রেজা, মাওলানা মেহেদী হাসান প্রমূখ। তারা বায়তুল মোকাররমে আজকের বিক্ষোভ সমাবেশ সফল করার আহবান জানান।

ইসলামী ছাত্র মজলিস
কাশ্মীরের মুসলমানদের উপর গণহত্যার প্রতিবাদ এবং তাদের স্বায়ত্তশাসন ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা এনামুল হক মূসা বলেন, ভারতের জালিম মোদি সরকার কাশ্মীরের জনগণের উপর সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, কাশ্মীরের স্বাধীনতা ফিরিয়ে দিতে বিলম্ব করলে ভারত ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে।

মহানগর সভাপতি মুহাম্মদ শরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ সানোয়ার হোসাইনের পরিচালনায় মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূঁইয়া।

খেলাফত মজলিস
খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে ভারতর কাশ্মীরের উপর অধিকার হারিয়েছে। আজ কাশ্মীরে গণহত্যা চলছে। খুন, ধর্ষণ, নির্যাতন চলছে। পুরো কাশ্মীর জেলখানায় পরিণত হয়েছে। আমরা কাশ্মীরে ভারতে এ আগ্রাসন নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। গতকাল শুক্রবার সকালে খেলাফত মজলিসের সদস্যপ্রার্থীদের নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত কেন্দ্রীয় তরবিয়তী মজলিসে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

kkkm

জনসেবা আন্দোলন
বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলনের চেয়ারম্যান মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফখরুল ইসলাম বলেছেন, কাশ্মীরের মুসলমানরা মজলুম। মাজলুমের পক্ষে থাকা বিশ্বের সকল মুসলমানদের ঈমানী দায়িত্ব। শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলন কামরাঙ্গীরচর থানা নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। থানা সভাপতি মাওলানা আবু বকরের সভাপতিত্ব অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব ইয়ামিন হোসাইন আজমি, কাউসার আহমেদ নিরব ও মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন।

 

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful